Welcome to Desherboi Book Shop!
Free Call +8801711324644
Close

শৈশবের সিঁড়িগুলো : ১৯৬৯ থেকে ১৯৭১

শৈশবের সিঁড়িগুলো : ১৯৬৯ থেকে ১৯৭১

৳ 350.00 ৳ 245.00

Title শৈশবের সিঁড়িগুলো : ১৯৬৯ থেকে ১৯৭১
Author আবু হাসান শাহরিয়ার
Publisher ভাষাচিত্র
Tag আত্মস্মৃতি, আবু হাসান শাহরিয়ার, ভাষাচিত্র
ISBN 978-984-94105-3-9
Number of Pages 168
Country বাংলাদেশ
Language বাংলা

Product Description

Spread the love

জন্মের ১০ বছর পর থেকে এ বইয়ের আখ্যানগুলোর শুরু। ১৯৬৯-এ শুরু হয়ে ১৯৭১-এ শেষ। যখন শেষ, তখন শৈশব-কৈশোরের সন্ধিক্ষণ- ১২ পূর্ণ করে ১৩’য় পা দিয়েছি। বইয়ের শেষ দুটি অধ্যায় পূর্ববর্তী অধ্যায়গুলোর পূর্বাপর বিশ্লেষণ। অভিজ্ঞতা শৈশবের; অক্ষরবন্দি করেছি পরিণত বয়সে। বিশ্লেষণের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।

রামকৃষ্ণ পরমহংস বলতেন, ‘ঈশ্বরের বালকস্বভাব’। মানে, বালকেরও ঈশ্বরস্বভাব। ১৯৬৯ থেকে ১৯৭১ আমি সর্বার্থে বালক ছিলাম। আর, এই সময়কালেই বাংলাদেশের জন্ম। একই সময় বাঙালির জাতীয় জীবনে শেখ মুজিবুর রহমান নামে একজন মহামানবের উজ্বল আবির্ভাব। এতটা উজ্জ্বল যে, সমগ্র বিশ্বের চোখ তার ওপর নিবদ্ধ হয়েছিল। মহামানবের ঘনিষ্ঠ সতীর্থ সৈয়দ নজরুল ইসলাম আমার গোলাপ নানা। নানার বাড়ি ও আমাদের বাসা ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজলগ্ন মাঠের এপার-ওপার হওয়ায় ওই বাড়িতেই আমার রাজনীতির বাল্যশিক্ষা। পরিণত বয়সে বুঝেছি, মহাকালের মাঠে সবাই শিশু। যুদ্ধের শিকার হলে এই সত্য বিশদে অনুধাবন করা যায়। তখন ছোটোবড়ো সবাই সমান অসহায়। স্বীকার করতেই হয়, বাল্যের অভিজ্ঞতা লেখালেখির জীবনে আমাকে বিপুল রসদ জুগিয়েছে। শৈশবই আমার নদীপ্রেম, বৃক্ষপ্রেম ও বইপ্রেমের বীজতলা। মহামানবের সঙ্গে প্রথম দেখাও ময়মনসিংহের শৈশবে। শৈশবেই ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, সত্তরের নির্বাচন ও একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ। অন্যদিকে, তিনটি শহরে কেটেছে আমার কৌতূহলী ছেলেবেলা- ঢাকা, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ। কলতাপাড়া ও গাবরগাঁতী নামের দুটি গ্রামেও। ছেলেবেলার বহুরৈখিক স্মৃতিচারণের পাশাপাশি বাংলা ও বাঙালির শ্রেষ্ঠতম সময়কে মূল্যায়নের সামান্য চেষ্টা এ বই।

– আবু হাসান শাহরিয়ার

আবু হাসান শাহরিয়ার

জন্ম : ২৫ জুন ১৯৫৯, রাজশাহী পৈতৃকবাস : কড্ডাকৃষ্ণপুর, সিরাজগঞ্জ পেশা : সাংবাদিকতা নেশা : নৌকায় নদীতীরবর্তী জনপদে ঘুরে-বেড়ানো এবং গাছ-লাগানো প্রকাশনা কবিতা : অন্তহীন মায়াবী ভ্রমণ, অব্যর্থ আঙুল, তোমার কাছে যাই না তবে যাব, একলব্যের পুনরুত্থান, নিরন্তরের ষষ্ঠীপদী, এবছর পাখিবন্যা হবে, ফিরে আসে হরপ্পার চাঁদ, হাটে গেছে জড়বস্তুবাদ, সে থাকে বিস্তর মনে বিশদ পরানে, আড়াই অক্ষর, শ্রেষ্ঠ কবিতা, তোমাদের কাচের শহরে, কিছু দৃশ্য অকারণে প্রিয়, অসময়ে নদী ডাকে, শিশিরে পা রাখো অসুখীরা, বিমূর্ত প্রণয়কলা, আবু হাসান শাহরিয়ারের প্রেমের কবিতা, ১০০ প্রেমের কবিতা, নোনা ব্যঞ্জনার শিলালিপি কাব্য : বালিকা আশ্রম গদ্য/প্রবন্ধ : উদোরপিণ্ডি, কালের কবিতা কালান্তরের কবিতা, কবিতার প্রান্তকথা, কবিতা অকবিতা অল্পকবিতা, কবিতার বীজতলা, আমরা একসঙ্গে হেঁটেছিলাম, প্রবন্ধসংগ্রহ ননফিকশন/আখ্যান : অর্ধসত্য, সমাত্মজীবনী : মিডিয়া ও প্রতিমিডিয়া, পায়ে পায়ে, যাইত্যাছি যাইত্যাছি কই যাইত্যাছি জানি না, নৈঃশব্দ্যের ডাকঘর (মৃণাল বসুচৌধুরীর সঙ্গে যৌথভাবে), চম্পূবচন আত্মজৈবনিক রচনা : শৈশবের সিঁড়িগুলো : ১৯৬৯ থেকে ১৯৭১ ছোটোগল্প : আসমানি সাবান সংলাপ : কবিতার সঙ্গে কথোপকথন কিশোর-কবিতা : পায়ে নূপুর, ভরদুপুরে অনেক দূরে, আয়রে আমার ছেলেবেলা সম্পাদনা : প্রামাণ্য শামসুর রাহমান (সৈয়দ আল ফারুকের সঙ্গে যৌথভাবে), দেশপ্রেমের কবিতা, বিরহের কবিতা (নাসিমা সুলতানার সঙ্গে যৌথভাবে), জীবনানন্দের গ্রন্থিত-অগ্রন্থিত কবিতাসমগ্র, জীবনানন্দ দাশের গ্রন্থিত-অগ্রন্থিত শ্রেষ্ঠ কবিতা, জীবনানন্দ দাশের প্রেমের কবিতা, রূপসী বাংলা (কবিকৃত পাণ্ডুলিপি-সংস্করণ), বনলতা সেন, জীবনানন্দ দাশ : মূল্যায়ন ও পাঠোদ্ধার, কবিদের লেখা প্রেমপত্র, ৩২ নম্বর : চোখের আলোয় দেখেছিলেম, ছোটোগল্প : ৯৮ পুরস্কার : বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারসহ বিবিধ পুরস্কার ও সম্মাননা

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “শৈশবের সিঁড়িগুলো : ১৯৬৯ থেকে ১৯৭১”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

All search results